নিজস্ব প্রতিবেদন,

দৈনিক ভোলা টাইমস::ভোলা সদর উপজেলার পশ্চিম ইলিশা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডে কৃষকদের জমির পানি নিষ্কাশনের সরকারী খালটি দখল করার যে ষড়যন্ত্রমূলক অভিযোগে অভিযুক্ত ফাইভ স্টার ব্রিকস এর মালিক আবদুল খালেক তা সম্পুর্ন মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। যদিও খাল দখল করে কৃষকদের জমির ফসল নষ্ট করার মিথ্যা ষড়যন্ত্রমূলক অভিযোগের তথ্য দিয়ে কিছু গনমাধ্যমে আবদুল খালেককে খাল দখলের অভিযোগে অভিয্ক্তু বানিয়ে সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে ।

তবে এ বিষয়ে ফাইব স্টার ব্রিকস এর মালিক আবদুল খালেক ভোলা টাইমস্ কে জানান, যেহুতু আমি নিজে গত ১.১১.২০ ইং তারিখে ক্রয়কৃত সম্পত্তির মধ্যে আংশিক খাস সম্পত্তি হওয়ায় উক্ত খাস সম্পত্তি নির্ধারন পুর্বক ক্রয়কৃত সম্পত্তি ও খাস সম্পত্তি পৃথকী করনের প্রার্থনা জানিয়ে ভোলা জেলা প্রশাসক ও ভুমি কর্মকর্তা বরাবর একটি আবেদন( দরখাস্ত) প্রদান করেছি ।

সেই সুত্রে গতকাল সোমবার (৯ নভেম্বর) বেলা ১১ টায় পশ্চিশ ইলিশার ৬ নং ওয়ার্ডে অবস্থিত আমার নিজ মালিকানার ফাইব স্টার ব্রিকস প্রতিষ্ঠানটির ভূমির যায়গাটি পরিদর্শনে আসেন ভোলা সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার মিজানুর রহমান ও সহকারী কমিশনার (ভূমি) আবি আবদুল্লাহ এবং সরজমিন পরির্দশন করে তিনি খাস জমিটির সংযুক্ত আমার ক্রয়কৃত সম্পত্তির দলিলাদি যাচাই করেন যাহা সম্পুর্ন বৈধ কাগজ।

পরে সদর উপজেলা নির্বাহি অফিসার মহাদয়, সহকারী অফিসার ভুমি কর্মকর্তাকে আগামী ৭ দিনের মধ্যে খাস জমি ও আমার ক্রয়কৃত সম্পত্তির পিলার নির্ধারনের মাধ্যমে পৃথকী করন করে এই সমস্যার সুষ্ঠ সমাধানের আদেশ দেন। তিনি আরো বলেন, আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রকারীরা খাল দখলের যে অভিযোগ উঠিয়েছে এবং ভোলার গনমাধ্যাম পেশায় নিয়োজিত কিছু সাংবাদিকদেরকে ভুল তথ্যদিয়ে সংবাদ পরিবেশনে বাধ্য করেছে ।

উল্লেখ্য ভোলা সদর উপজেলার নির্বাহি অফিসার মিজানুর রহমান ও সহকারী ভুমি কমিশনার মোঃ আবি আবদুল্লাহ ভোলা সদর উপজেলার পশ্চিম ইলিশা ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডে সরকারী খালের সাথে সংযুক্ত ফাইব স্টার ব্রিকস্ প্রতিষ্ঠানটির জমি পরিদর্শনে যান।

Leave a comment