1. arifkhan@gmail.com : আরিফ খান : আরিফ খান
  2. mdmf@gmil.com : আশিষ আচার্য্য : আশিষ আচার্য্য
  3. asrapur121@gmail.com : আশরাফুর রহমান ইমন : আশরাফুর রহমান ইমন
  4. borhanuddin121@gmail.com : বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধি : বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধি
  5. admin@bholatimes24.com : Admin : Admin
  6. ssikderreport@gmail.com : চরফ্যাশন প্রতিনিধি : চরফ্যাশন প্রতিনিধি
  7. dowlatkhan@gmail.com : দৌলতখান প্রতিনিধি : দৌলতখান প্রতিনিধি
  8. easin21@gmail.com : ইয়াছিনুল ঈমন : ইয়াছিনুল ঈমন
  9. gourabdas121@gmail.com : গৌরব দাস : গৌরব দাস
  10. hasanpintu2010@gmail.com : লালমোহন প্রতিনিধি : লালমোহন প্রতিনিধি
  11. iqbalhossainrazu87@gmail.com : ইকবাল হোসেন রাজু : ইকবাল হোসেন রাজু
  12. iftiazhossen5@gmail.com : ইসমাইল হোসেন ইফতিয়াজ : ইসমাইল হোসেন ইফতিয়াজ
  13. mdmasudalom488@gmail.com : Afnan masud : Afnan masud
  14. mnoman@gmail.com : এম,নোমান চৌধুরী : এম,নোমান চৌধুরী
  15. monpura@gmail.com : মনপুরা প্রতিনিধি : মনপুরা প্রতিনিধি
  16. najmu563@gmail.com : নাজমুল মিঠু : নাজমুল মিঠু
  17. najrul125@gmail.com : নাজরুল ইসলাম সৈারভ : নাজরুল ইসলাম সৈারভ
  18. news.bholatimes1@gmail.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  19. news.bholatimes@gmail.com : News Room : News Room
  20. nirob121@gmil.com : ইউসুফ হোসেন নিরব : ইউসুফ হোসেন নিরব
  21. abnoman293@gmail.com : এম নোমান চৌধুরী চরফ্যশন প্রতিনিধি : এম নোমান চৌধুরী চরফ্যশন প্রতিনিধি
  22. mdmasudaom488@gmil.com : তজুমদ্দিন প্রতিনিধি : তজুমদ্দিন প্রতিনিধি
  23. sohel123@gmail.com : সোহেল তাজ : সোহেল তাজ
  24. btimes536@gmail.com : সৌরভ পাল : সৌরভ পাল
  25. bholatimes2010@gmail.com : স্টাফ রিপোর্টার : স্টাফ রিপোর্টার
বুধবার, ১৬ জুন ২০২১, ০৮:৫৩ অপরাহ্ন

শুভ্রবসনের ক্রিকেটে স্বপ্নযাত্রার সময়ের সিঁড়ি বেয়ে কেটে গেছে ২০ বছর

রির্পোটার
  • সময়: মঙ্গলবার, ১০ নভেম্বর, ২০২০
  • ১০ Time View

স্পোর্টস ডেস্ক॥

১০ নভেম্বর ২০০০। ঢাকার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে স্বর্ণমুদ্রায় টস করলেন ইতিহাসের প্রথম দুই বাঙালি ক্রিকেট অধিনায়ক বাংলাদেশের নাঈমুর রহমান দুর্জয় ও ভারতের সৌরভ গাঙ্গুলী। বাংলাদেশের অভিষেক টেস্টকে ঘিরে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে উৎসবের আবহ। বাকিটা ইতিহাস। বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে টেস্টে আমিনুল ইসলাম বুলবুলের সেঞ্চুরি, প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশের ৪০০ রান এবং অফ-স্পিনে নাঈমুরের ছয় উইকেট। বাংলাদেশ যদিও চারদিনে হেরেছিল অভিষেক টেস্ট; কিন্তু স্বপ্নযাত্রার সূচনালগ্নে দাগ কেটেছিলেন আমিনুল, হাবিবুল, নাঈমুররা-ঠিক ২০ বছর আগে ২০০০ সালের ১০ নভেম্বর বাংলাদেশের আকাশে সূর্যটা একটু বেশিই ঝলমলে ছিল। সেই আলো কেড়ে নিয়েছিল বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়াম। সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উদ্বোধন করার পর নাঈমুর রহমান দুর্জয় ও সৌরভ গাঙ্গুলী স্বর্ণের মুদ্রায় টস করেন। ইতিহাসের সেই শুরু। বাংলাদেশের ক্রিকেটে নতুন দিগন্তের সূচনা। বাংলাদেশের অভিষেক টেস্ট ম্যাচ খেলা ক্রিকেটারদের মধ্যে আজ কেউ বিসিবির পরিচালক কেউ নির্বাচক। সময়ের সিঁড়ি বেয়ে আশা-নিরাশার দোলাচলে কেটে গেছে ২০ বছর।

সাদা পোশাকের ক্রিকেটে বাংলাদেশের শুরুর পথ যতটা মসৃণ মনে হয়েছিল, দুই দশক পর ততটাই দুর্গম। যেখান থেকে শুরু সেখানেই যেন রয়ে গেছে। তবুও বাংলাদেশের শুরুর সেই দিনের স্মৃতি এখনও নাঈমুর রহমান, হাবিবুল বাশারদের কাছে অনাবিল আনন্দের প্লাবন হয়ে আছে। বাংলাদেশের অভিষেক টেস্ট ম্যাচে প্রথম বল খেলেছিলেন শাহরিয়ার হোসেন বিদ্যুৎ। প্রথম আউট হয়েছিলেন মেহরাব হোসেন। প্রথম সেঞ্চুরি আমিনুল ইসলাম বুলবুলের। প্রথম বল করেছিলেন হাসিবুল হোসেন শান্ত। প্রথম উইকেট নাঈমুর রহমানের। টেস্ট ক্রিকেটে বাংলাদেশের এরকম অনেক ‘প্রথমের’ সাক্ষী সেদিন স্বপ্নের অভিষেক টেস্ট একাদশে থাকা ক্রিকেটাররা।

বাংলাদেশের প্রথম টেস্ট অধিনায়ক নাঈমুর রহমান এখন জাতীয় সংসদ সদস্য। বিসিবির পরিচালক। ২০ বছর পেছনে গিয়ে তিনি বলেন, ‘ওইদিন প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে অনেকেই উপস্থিত ছিলেন। আমি যখন টস করতে যাই অনুভব করছিলাম, দেশের ক্রিকেটকে পরের স্তরে নিয়ে যাওয়ার যাত্রা শুরু করতে যাচ্ছি।টেস্ট ক্রিকেটে আমরা একেবারে নতুন। সেটা এককথায় অসাধারণ অনুভূতি।’ তিনি বলেন, ‘আমরা তার আগে প্রতি বছর শুধু কিছু ওয়ানডে ম্যাচ খেলতাম। বুঝতে পারছিলাম দেশ এরপর আরও অনেক এগিয়ে যাবে। ক্রিকেটাররা অনেক ম্যাচ খেলার সুযোগ পাবে। নতুন সূচনা হয়েছিল সেদিন। টেস্ট ক্রিকেটে আমরা অবশ্যই উন্নতি করেছি। তবে আরও উন্নতি করলে ভালো লাগত।’

প্রথম টেস্টের দুই ইনিংসেই আস্থার পরিচয় দিয়েছিলেন হাবিবুল বাশার। প্রথম ইনিংসে ফিফটির পর দ্বিতীয় ইনিংসে সর্বোচ্চ ৩০ রান এসেছিল তার ব্যাট থেকে। হাবিবুল বাশার এখন জাতীয় দলের অন্যতম নির্বাচক। বাংলাদেশের টেস্ট ক্রিকেটের শুরু থেকে সবই চোখের সামনে দেখছেন। তিনি বলেন, ‘আমরা শুরু করেছিলাম শূন্য হাতে। জানাই ছিল, আমরা প্রথমদিকে কঠিন অবস্থা পার করব। একথা সবাই জানি, বলাও হয়েছে অনেকবার। বাকি টেস্ট খেলুড়ে দেশগুলো অনেক আগে থেকে টেস্ট খেলেছে। ১০০ বছর আগেও খেলেছে। আমাদের জন্য কঠিন ছিল। শুরুতে আমরা কঠিন সময় পার করেছি। আবার নিজেদের আস্তে আস্তে গুছিয়ে নিয়েছি।’ তিনি বলেন, ‘সেদিন প্রথম টেস্ট খেলতে নামার আগে অনেক উপদেশ পেয়েছিলাম। অনেক বিষয় জানার চেষ্টা করেছিলাম। বল ছাড়তে হবে, রক্ষণাত্মক খেলতে হবে, ছয় ঘণ্টা উইকেটে থাকতে হবে, এরকম অনেক কিছু। প্রথম ইনিংসে একটু ভুল না করলে হয়তো আমিও সেদিন সেঞ্চুরি করতে পারতাম। তবে অভিষেক টেস্টই আমার মধ্যে আত্মবিশ্বাস তৈরি করেছিল।’

অভিষেক টেস্টে বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে ৪০০ রান করেছিল। ভারত ৪২৯। ড্র করার হাতছানি ছিল বাংলাদেশের সামনে। কিন্তু দ্বিতীয় ইনিংসে বাজে ব্যাটিংয়ে মাত্র ৯১ রানে অলআউট। এক উইকেট হারিয়ে জয় নিশ্চিত করে ভারত। সাদা পোশাকের ক্রিকেটে অঙ্কুরে যে উজ্জ্বল সম্ভাবনা উঁকি দিয়েছিল, ২০ বছরে তা কতটুকু পূরণ হয়েছে, এই প্রশ্ন করাই যায়। এ সময়ে বাংলাদেশ খেলেছে ১১৯টি টেস্ট। জয় মাত্র ১৪টি। ১৬ ড্র। হেরেছে ৮৯ ম্যাচে। বাংলাদেশ এখনও আফগানিস্তান, ভারত, পাকিস্তান, নিউজিল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ জিততে পারেনি। সর্বোচ্চ সাতটি টেস্ট ম্যাচ জয় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে। চারটি জয় ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে। একটি করে জয় অস্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ড ও শ্রীলংকার বিপক্ষে। চট্টগ্রামে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২০০৫ সালে প্রথম টেস্ট জেতে বাংলাদেশ। সেই জয়ের নায়ক এনামুল হক জুনিয়র। ৩৩ বছর বয়সী এই বাঁ-হাতি স্পিনারের কাছে এখনও সেই স্মৃতি টাটকা। বঙ্গবন্ধু টি ২০ ক্রিকেটে খেলার জন্য কাল ফিটনেস টেস্ট দিতে মিরপুর স্টেডিয়ামে এসেছিলেন এনামুল। প্রথম টেস্ট জয়ের স্মৃৃতি নিয়ে তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের প্রথম জয়। আমি ম্যান অব দ্য ম্যাচ। সেই স্মৃতি কীভাবে ভুলি। বাংলাদেশের আরও বেশি জয় দেখতে চেয়েছিলাম।’

শেয়ার করুন:

আরো সংবাদ:

প্রয়োজনীয় ফোন নাম্বার

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৪ - ২০২১ © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ।
Developer By Zorex Zira
Enable Notifications    OK No thanks