বরিশাল প্রতিনিধি ॥
বরিশাল-ঢাকা নৌরুটের যাত্রী পরিবহনকারী বিলাসবহুল লঞ্চ সুন্দরবন-১১ এর ছাদে এক যুবককে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। লঞ্চটি আজ মঙ্গলবার (১৭ নভেম্বর) ভোর রাত সাড়ে ৩টার দিকে ঢাকা থেকে বরিশালে এসে পৌঁছায়। সকালে শামীম হাওলাদার নামের ওই যুবকের লাশটি উদ্ধার করে বরিশাল পুলিশ। ঝালকাঠির নলছিটি উপজেলার কুপিলা গ্রামের বাসিন্দা যুবক শামীম রাজধানীতে গার্মেন্টস শ্রমিক ছিলেন।

সন্দরবন লঞ্চে দায়িত্বরত আনসার ও নৌ পুলিশ জানায়, লঞ্চটি বরিশাল নৌ ঘাটে পৌঁছার পরে যাত্রী নামিয়ে দিয়ে ভোর ৬টার দিকে লঞ্চ ধোয়া মোছার কাজ শুরু করেন স্টাফরা। এ সময় তারা ছাদে সাইলেন্সারের পাশে এক যুবককে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখেন। যুবকের পরনে কালো প্যান্ট আর খয়েরি রংয়ের শার্ট ছিল। যুবকটির বুকে ও পেটে ধারলো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে।

স্টাফরা সুপারভাইজার ও সিকিউরিটিকে খবর দেন। পরে নৌ পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে আসে। লঞ্চের সুপারভাইজার সিরাজুল ইসলাম জানান, ছাদে যাত্রী ওঠা নিষেধ। এ জন্য ছাদে ওঠার গেটও বন্ধ রাখা হয়। কিন্তু এই যুবক কীভাবে ছাদে উঠলেন তা জানা যায়নি। পুলিশ জানিয়েছে, যুবকের পেটে ছুরিকাঘাত করা হয়েছে। এতে তার নাড়িভুঁড়ি বেরিয়ে গেছে এবং তাতে তার মৃত্যু হয় ।

Leave a comment