দৈনিক ভোলা টাইমস্ :: ৫ থেকে ২১ জুনজাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষ্যে ভোলার লালমোহনে ৩৯ হাজার ৪৩০ জন শিশুকেভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

শনিবার দুপুরে লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সের হলরুমে জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন ২০২১ অবহিতকরণ ও পরিকল্পনা সভাঅনুষ্ঠিত হয়। সভায় বলা হয়, ৬-১১ মাস বয়সী সকল শিশুকে ১ টি নীল রঙের এবং ১২-৫৯ মাসবয়সী সকল শিশুকে ১টি লাল রঙের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এ বছর ভোলারলালমোহন উপজেলায় ৬-১১ মাস বয়সী ৪ হাজার ৫০৮ জন এবং ১২-৫৯ মাস বয়সী ৩৪ হাজার ৯২২জন শিশুকে ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে। উপজেলা স্বাস্থ্য ওপরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে এবং আবাসিক মেডিকেল অফিসারডাঃ মহসিন খান এর সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন লালমোহন উপজেলা পরিষদেরচেয়ারম্যান অধ্যক্ষ গিয়াস উদ্দিন আহমেদ। বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহীঅফিসার আল নোমান। সভায় জানানো হয়, লালমোহনের বিচ্ছিন্ন চর কচুয়ার সকল শিশুরা যাতেটিকা পেতে পারে তার জন্য বিশেষ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। চর কচুয়ায় ৬-১১ মাস বয়সী ৪১জন এবং ১২-৫৯ মাস বয়সী ২২৩ জন শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। উপজেলারকোন শিশু যেন টিকা থেকে বাদ না পড়ে তার জন্য সর্বাত্মক ব্যবস্থা নেয়া হবে। অনেক সময়টিকা খাওয়ানোর পর শিশুদের বিভিন্ন সমস্যা হতে পারে এতে চিন্তার কোন কারণ নেই উল্লেখকরে বলা হয়, ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুলের কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই।

তবে খালি পেটে নাখেয়ে ভরা পেটে ভিটামিন এ খাওয়ালে কোন সমস্যা হবে না। তারপরও যদি কোন সমস্যা হয়েথাকে তাহলে চিকিৎসকদের পরামর্শ নিতে বলা হয়েছে।

Leave a comment