বাংলাদেশি এক মানব পাচারকারীকে গ্রেফতার করেছে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফ। বৃহস্পতিবার (১০ জুন) তারা জানিয়েছে, ভুয়া পরিচয় দিয়ে গত ২০ বছর ধরে ভারতে লুকিয়ে ছিলেন এই ব্যক্তি। খবর প্রকাশ করেছে ইউনাইটেড নিউজ অব ইন্ডিয়া।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, হাসান গাজী নামের এই মানব পাচারকারী ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বসিরহাটের ইতিন্দা গ্রামে বসবাস করে আসছিলেন। তিনি বাংলাদেশের সাতক্ষীরা জেলার ভারখলি থানার মোল্লাপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। দীর্ঘদিন ধরে তাকে খুঁজছে পুলিশ। বিএসএফ কর্মকর্তার বরাতে জানা গেছে, গোয়েন্দা সংস্থার তথ্যের ভিত্তিতে গত ৭ জুন ঘোজাডাঙ্গা সীমান্ত থেকে হাসান গাজীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ সময় তার কাছ থেকে দুটি মোবাইল ফোন, একটি ভারতীয় সিম কার্ড, পাঁচটি বাংলাদেশি সিম কার্ড এবং কিছু ভুয়া আধার কার্ড উদ্ধার করা হয়েছে। তাকে গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাৎক্ষণিকভাবে বিওপি ঘোজাডাঙ্গা স্টেশনে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে এই মানব পাচারকারী স্বীকার করেছে যে, সে একজন বাংলাদেশি এবং অবৈধভাবে ভারতে প্রবেশ করে। গত ২০ বছর ধরে অবৈধভাবে ভারতেই বসবাস করছে। খুকুমনি বিবি নামে এক ভারতীয় নারীকেও বিবাহ করেন তিনি।

Leave a comment