স্টাফ রিপোর্টার ॥

ভোলায় টাকা আত্মসাৎ করার উদ্দেশ্যে মিথ্যা নারী নির্যাতন মামলায় জরানোর হুমকির অভিযোগ উঠেছে ভোলা পোস্ট অফিসের পোস্ট ই সেন্টারের কম্পিউটার ট্রেইনার আসিক মাহমুদ এর স্ত্রীর বিরুদ্ধে। ভোলা পৌরসভার পশ্চিম উকিল পাড়া, ০৮ নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে । সাব্বির সরোয়ার অপু অভিযোগ করে জানান, তার মামা মৃত আলি আনোয়ার খোকনের কাছ থেকে আমার মা আমেনা ইসলাম ঢাকার বাসার ভাড়া বাবৎ (১৫২৮০০) টাকা এবং ধার বাবৎ আরো (২০,০০০) টাকা সর্বমোট (১৭২,৮০০) টাকা পায় এবং আমার ছোট ভাই আলি আক্তার বাসা ভাড়া বাবৎ (১২৫৬০০) টাকা ও ধার বাবৎ ৩০,০০০ টাকা পায়। আমার মা আমেনা ইসলাম হাটের অসুস্থাতার কারনে এবং আমার মামা আলি আক্তার বিদেশে থাকার কারনে আমাকে এই টাকা উত্তোলনের দায়িত্ব দেওয়ায় আমি বিভিন্ন সময় টাকা চাইতাম। টাকা চাইতে গেলে তারা দেয় দিচ্ছি বলে সময় নিয়ে ঘুরোঘুরি করছে।

সর্বশেষ গত ২৪ই জুন রোজ বৃহস্পতিবার টাকা চাইতে গেলে লাকী বেগমকে টাকার চাইতে ফোন দিলে সে আমাকে অকত্ত্ব ভাষায় চোর, বাটপার, লুইট্টা খাইছোস এই বিল্ডিং তুই তোর মা তোর মামারা বাটপারি করছ আমার লগে, টাকা নেয়ার জন্য পুথি সেলাই করে বসে থাক কোন টাকা দেব না ইত্যাদি বলে গালিগালাজ করে। এরপর মামি লাকী বেগমের বড় ছেলের বউ আসিক মাহমুদ শিমুল (ভোলা পোস্ট অফিসের পোস্ট ই সেন্টারের কম্পিউটার ট্রেইনার) স্ত্রী আমার মামাতো ভাই রহিদকে উক্ত নাম্বার থেকে (০১৭৮৬৫০০৯২২) মুটো ফোনে কল দিয়ে অবহিত করেন যে, পরবর্তীতে আমি যদি আমার পাওনা টাকার জন্যে কোন রকম কারো কাছে বলি তাহলে সে তার নিজের শরীরের কাপর ছিড়ে আমার নামে নারি নির্যাতন মামলা দিয়ে ফাসাবে। এমনটাই আমার মামাতো ভাই রহিদ আমাকে অবহিত করেন। এবং সাথে ওই কথপোকথনের কল রেকটটি প্রেরন করে যাতে আমি ভয়ে ভবিষ্যতে পাওনা টাকা দাবি থেকে বিরত থাকি।

Leave a comment