বিশ্ব মহামারি করোনার মধ্যেও ২০২০ সালে দেশে মানুষের গড় আয়ু দশমিক দুই বছর বেড়ে ৭২ দশমিক আট বছরে দাঁড়িয়েছে। এর আগে ২০১৯ সালে গড় আয়ু ছিল ৭২ দশমিক ছয় বছর।
বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরোর (বিবিএস) ২০২০ সালের জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে। সোমবার পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান বিবিএস কার্যালয়ে এই প্রতিবেদন প্রকাশ করেন। বিবিএসের প্রতিবেদন অনুযায়ী, পুরুষের তুলনায় নারীদের গড় আয়ু বেশি বেড়েছে। ২০২০ সালে পুরুষের গড় আয়ু বেড়ে ৭১.২ বছর ও নারীদের ৭৪.৫ বছরে দাঁড়ায়। যা ২০১৯ সালে ছিল যথাক্রমে ৭১.১ বছর ও ৭৪.২ বছর।
প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত পাঁচ বছরে গড়ে প্রতি বছর দশমিক ২৪ বছর হারে আয়ু বেড়েছে। অর্থাৎ পাঁচ বছরে গড় আয়ু এক দশমিক দুই বছর বেড়েছে। পুরুষের ক্ষেত্রে দশমিক নয় বছর ও নারীদের ক্ষেত্রে এক দশমিক ছয় বছর বেড়েছে বলে ওই প্রতিবেদনে বলা হয়। জরিপে দেখা গেছে, দেশের জনসংখ্যা এখন ১৬ কোটি ৮২ লাখ। এর মধ্যে পুরুষ ৮ কোটি ৪২ লাখ। নারী ৮ কোটি ৪০ লাখ। দেশে এখন খানার গড় আকার ৪.৩ জন। খাওয়ার পানির ব্যবহার করছে ৯৮.৩ শতাংশ মানুষ। টয়লেট সুবিধা আছে ৮১.৫ শতাংশ।
প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, জনসংখ্যার স্বাভাবিক বৃদ্ধির হার ১.৩০ শতাংশ। আগের বছর ছিল ১.৩২ শতাংশ। তার আগের বছর ছিল ১.৩৩ শতাংশ। জনসংখ্যার ঘনত্ব আগের বছরের তুলনায় বেড়েছে।
দেশে এখন প্রতি বর্গকিলোমিটারে বসবাস করে ১ হাজার ১৪০ জন। আগের বছর ছিল ১ হাজার ১২৫ জন।

Leave a comment