বিকট শব্দে রাজধানীর মগবাজারে ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনা নাশকতা কিনা তার তদন্তে মাঠে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স ও পুলিশ। বিস্ফোরণের ঘটনায় সম্ভাব্য কারণ অনুসন্ধানে তাই ঘটনাস্থল থেকে আলামত সংগ্রহ করছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) ফরেনসিক ও ক্রাইম সিন ইউনিট। এরই ধারাবাহিকতায় ফায়ার সার্ভিস কর্তৃক গঠিত তদন্ত কমিটি ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও আলামত সংগ্রহ করছেন।

সোমবার (২৮ জুন) দুপুরে ঘটনাস্থলে পরিদর্শনে আসেন ক্রাইম সিন ইউনিটের প্রধান অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান। তিনি জানান, বিস্ফোরণটা মারাত্মক ছিল। প্রাথমিকভাবে নানা কারণ উঠে আসলেও বিস্ফোরণের সঠিক কারণ এখনো নিশ্চিত না। আলামত সংগ্রহ করা হচ্ছে। সেগুলো ফরেনসিকে পরীক্ষা করে দেখা হবে। তিনি বলেন, আমাদের চৌকস দল ক্ষতিগ্রস্ত ভবন ও আশপাশে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা এরিয়া কর্ডন করে আলামত সংগ্রহ করছেন।

ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স অধিদফতর কর্তৃক গঠিত তদন্ত কমিটির সদস্য সহকারী পরিচালক (ঢাকা) ছালেহ উদ্দিন আহমেদের বলেন, প্রাথমিকভাবে ধারণা, জমে থাকা গ্যাসে ভবনটি গ্যাস চেম্বারে পরিণত হয়েছিল। কোনো স্পার্ক হয়ে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটতে পারে। আমাদের তদন্ত দল আলামত সংগ্রহ করছে। পারিপার্শ্বিক অবস্থা ও সংগৃহীত আলামত বিশ্লেষণ শেষে এ ব্যাপারে প্রতিবেদন দাখিল করা হবে।

এর আগে রবিবার (২৭ জুন) সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় মগবাজারের ওয়্যারলেস গেট এলাকায় ফ্যাশন ও লাইফস্টাইল ব্র্যান্ড আড়ংয়ের শো-রুম লাগোয়া ভবনে বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত সাতজন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। এছাড়া আহত হয়েছেন আরও অন্তত ৬০ জনের বেশি মানুষ।

দগ্ধদের মধ্যে ১৭ জনকে শেখ হাসিনা বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করা হয়েছে। এছাড়া বাকিদের আশপাশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

Leave a comment