1. mdmf@gmil.com : আশিষ আচার্য্য : আশিষ আচার্য্য
  2. asrapur121@gmail.com : আশরাফুর রহমান ইমন : আশরাফুর রহমান ইমন
  3. borhanuddin121@gmail.com : বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধি : বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধি
  4. admin@bholatimes24.com : Bhola Times | Online Edition : Bhola times Online Edition
  5. ssikderreport@gmail.com : চরফ্যাশন প্রতিনিধি : চরফ্যাশন প্রতিনিধি
  6. dowlatkhan@gmail.com : দৌলতখান প্রতিনিধি : দৌলতখান প্রতিনিধি
  7. easin21@gmail.com : ইয়াছিনুল ঈমন : ইয়াছিনুল ঈমন
  8. gourabdas121@gmail.com : গৌরব দাস : গৌরব দাস
  9. hasanpintu2010@gmail.com : লালমোহন প্রতিনিধি : লালমোহন প্রতিনিধি
  10. hasnain50579@gmail.com : HASNAIN AHMED : MD HASNAIN AHMED
  11. iqbalhossainrazu87@gmail.com : ইকবাল হোসেন রাজু : ইকবাল হোসেন রাজু
  12. iftiazhossen5@gmail.com : ইসমাইল হোসেন ইফতিয়াজ : ইসমাইল হোসেন ইফতিয়াজ
  13. mdmasudalom488@gmail.com : Afnan masud : Afnan masud
  14. mnoman@gmail.com : এম,নোমান চৌধুরী : এম,নোমান চৌধুরী
  15. monpura@gmail.com : মনপুরা প্রতিনিধি : মনপুরা প্রতিনিধি
  16. najmu563@gmail.com : নাজমুল মিঠু : নাজমুল মিঠু
  17. najrul125@gmail.com : নাজরুল ইসলাম সৈারভ : নাজরুল ইসলাম সৈারভ
  18. news.bholatimes1@gmail.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  19. news.bholatimes@gmail.com : News Room : News Room
  20. nirob121@gmil.com : ইউসুফ হোসেন নিরব : ইউসুফ হোসেন নিরব
  21. abnoman293@gmail.com : এম নোমান চৌধুরী চরফ্যশন প্রতিনিধি : এম নোমান চৌধুরী চরফ্যশন প্রতিনিধি
  22. nhohechowdhury@gmail.com : OHE CHOWDHURY NAHID : OHE CHOWDHURY NAHID
  23. mdmasudaom488@gmil.com : তজুমদ্দিন প্রতিনিধি : তজুমদ্দিন প্রতিনিধি
  24. sanjoypaulrahul11@gmail.com : sanjoy pal : sanjoy pal
  25. sohel123@gmail.com : সোহেল তাজ : সোহেল তাজ
  26. btimes536@gmail.com : সৌরভ পাল : সৌরভ পাল
  27. bholatimes2010@gmail.com : স্টাফ রিপোর্টার : স্টাফ রিপোর্টার
শুক্রবার, ১৯ অগাস্ট ২০২২, ০৪:৪২ পূর্বাহ্ন

ভোলার মেঘনায় কার্গো বাল্কহেডে লাইনম্যান দেয়ার নামে চাদাবাজি,অদক্ষ লইনম্যানের জন্য একসপ্তাহে ৭টি জাহাজ ডুবি

রির্পোটার
  • সময়: সোমবার, ৫ জুলাই, ২০২১

সিলেটের ছাতক বা সুনামগঞ্জ থেকে বালু, পাথর বা অন্যান্য মালামাল নিয়ে হাতিয়া হয়ে চট্টগ্রাম যাওয়ার পথে ভোলার ইলিশা এলাকার মেঘনা নদীতে অদক্ষ লাইনম্যান দেয়ার নামে নীরব চাঁদাবাজির অভিযোগ উঠেছে। অদক্ষ লইনম্যান জোর জবরদস্তি করে দেয়ার কারনে গত একসপ্তাহে হাতিয়ার মোহনায় ৭টি জাহাজ ডুবে গেছে বলে দাবি করা হয়।

এর ফলে এই রুটে কোনো জাহাজ মালিক জাহাজ পাঠাতে বা ভাড়া দিতে অনিহা প্রকাশ করছেন। আজ সোমবার দুপুরে ভোলার তুলাতলি মাছঘাটে অনুষ্ঠিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে এমন অভিযোগ করেন বাংলাদেশ কার্গো ট্রলার বাল্কহেড শ্রমিক ইউনিয়নের তুলাতলি শাখার সাধারণ সম্পাদক আসলাম গোলদারসহ সংগঠনের নেতৃবৃন্ধ। এসময় তারা তাদেরকে এসব জাহাজে লাইনম্যান দেয়ার জন্য একমাত্র ভোলার বৈধ সংগঠন বলে জানান। এ সময় তিনি আরও অভিযোগ করেন, মালামাল নিয়ে কার্গোগুলে ভোলার ইলিশা রাজাপুর এলাকার মেঘনা নদীতে প্রবেশ করলেই ওই এলাকার একটি গ্রুপ ভূইফোর কিছু সংগঠনের নামে লাঠিসোঠা নিয়ে কার্গোতে গিয়ে উঠে এবং নদীপথ চিনিয়ে দেয়ার জন্য লাইনম্যান লোক নিয়োগ দেয়ার জন্য কার্গো স্টাফদেরকে চাপ প্রয়োগ করে। অনভিজ্ঞ এসব লোক হাতিয়া বা চট্টগ্রাম গিয়ে কার্গো থেকে নেমে যাবে এবং ১০ হাজার টাকা পারিশ্রমিক দিতে হবে। কোন কার্গোর স্টাফরা এধরণের লোক নিতে না চাইলে মারধর করার অভিযোগও রয়েছে। তিনি আরো অভিযোগ করে বলেন, আমরা দক্ষ লাইনম্যান দিতে গেলে বা জাহাজ মালিকরা আমাদের কাছে থেকে দক্ষ লাইনম্যান নিতে গেলে তাদেরকে বিভিন্ন জায়গা থেকে হত্যার হুমকি দেয়া হয়। আমরা এবিষয়ে ভোলা পুলিশ সুপারের সাথে দেখা করে কথা বলেছি। তিনি আমাদেরকে এর একটা সুরাহ করবেন বলে দু-দিনের সময় নিয়েছেন। তবে এসব চাদাবাজদের পক্ষ হয়ে ভোলা সদর থানায় এসআই ইমাম নামে একজন পুলিশ তুলাতুলি এসে আমাকে গালিগালাজ করেন এবং ইলিশার লোকজন এসব জাহাজে লাইনম্যান দিবে যতদিন যাবত পুলিশ সুপার সিদ্বান্ত না দেন তা জানিয়ে গেছেন বলেন এমন অভিযোগ করেন তিনি।

সংগঠনের সভাপতি লাল মিয়া মাঝি অভিযোগ করেন, কার্গোগুলোকে নিরাপদে রুট চিনিয়ে দেয়ার নাম করে মূলত নীরব চাদবাজি করা হচ্ছে। গত ৩রা জুলাই এদের দেয়া লোকেরা ভুল পথে নেয়ায় ৪ টি কাল্কহেড ডুবির ঘটনা ঘটেছে। তিনি জানান, এমভি ফাহাদ নামের বাল্কহেডটিতে বুদ্ধি মাঝি, সৈয়দ মিয়ান শাহতে রুবেল মাঝি, এমভি এমরান জোনায়েদ নামের বাল্কহেডটিতে সিরাজ মাঝিকে দেয়া হয়েছিল। অনভিজ্ঞ এসব লোক ভুলপথে নেয়ার বাক্লহেডগুলো দুর্ঘটনার শিকার হয়ে ডুবে যায়। এসব কার্গো ডুবির ঘটনায় থানায় জিডি করা হয়েছে বলেও তিনি জানান। সংবাদ সম্মেলনে তারা আরও জানান, এসব চাঁদাবাজদের বিরুদ্ধে ৪ঠা জুলাই বাল্কহেড মালিকদের পক্ষে অভিযোগ করা হলে ভোলা সদরের ইলিশা নৌপুলিশ দুজনকে আটক করে। পরে তারা আর জাহাজে গিয়ে চাদাবাজি করবে না বলে মুচলেকা আসে। প্রশাসনের কাছে অনতিবিলম্বে এই চাদাবাজি বন্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানিয়েছেন।

বাংলাদেশ কার্গো ট্রলার বাল্কহেড শ্রমিক ইউনিয়নের কেন্দ্রিয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক মো: হাবিবুর রহমান জানান, আমরা যারা সিলেট থেকে পাথর বা অন্যান্য মালামাল নিয়ে ভোলার মেঘনা হয়ে চট্টগ্রাম যেতে চাই তারা একজন দক্ষ লাইনম্যান নিয়ে চট্টগ্রাম যেতে চাই। কারন আমরা ভোলার এ পথগুলো চিনি না। সে জন্য আমরা জাহাজের পক্ষে একটা টাকা দিতে হয়। ভোলার ইলিশা এলাকায় আসলে আমরা যাদেরকে নিতে চাই না বা যা অদক্ষ এমন কিছু ভূইফোর বাংলাদেশ নৌ-যান শ্রমিক ও কর্মচারী ইউনিয়ন সংগঠনের পক্ষে আমাদেরকে জোর করে লইনম্যান প্রদান করে। তারা নদীপথ চিনেন না। গত তিনদিনে এমন জবরদস্তির জন্য ৭টি জাহাজ মেঘনা ও হাতিয়া এলাকায় ডুবে যায়। একধরনে চাদাবজি চলছে ইলিশায়। কারো কাছে কিছু বলা যাচ্ছে না। আমরা বাংলাদেশ কার্গো ট্রলার বাল্কহেড শ্রমিক ইউনিয়নের ভোলার তুলাতুলি এলাকার দক্ষ লোক নিতে চাইলে আমাদেরকে বাধা দেয়া হচ্ছে।

ভোলার পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার জানান, বাংলাদেশ কার্গো ট্রলার বাল্কহেড শ্রমিক ইউনিয়নের পক্ষে কয়েকজন এসে আমার সাথে কথা বলেছেন। আমি যাচাই করে এর ব্যাবস্থা গ্রহন করবো। এদিকে অপরপক্ষ বাংলাদেশ নৌ-যান শ্রমিক ও কর্মচারী ইউনিয়নের ভোলা জেলা শাখার উপ-পরিষদের সভাপতি মো: রোমান পাটোয়ারী সকল অভিযোগ অস্বিকার করেন। তিনি আরো বলেন, আমরা সকল নিয়ম মেনেই লাইনম্যান দিয়ে থাকি। আমাদের কোনো অদক্ষ লইনম্যানের কারনে কোনো জাহাজ ডুবি হয়নি। উল্লেখ্য, সিলেট থেকে ভোলা হয়ে চট্টগ্রামে যাওয়ার জন্য লাইনম্যান দেয়ার জন্য শ্রমিক সংগঠনের পক্ষে একমাত্র বৈধ সংগঠন হচ্ছে বাংলাদেশ কার্গো ট্রলার বাল্কহেড শ্রমিক ইউনিয়ন।

তাদের ভোলা জেলা ও ধনিয়া তুলাতুলি কমিটি থাকলেও তাদেরকে লাইনম্যান দেয়ার জন্য বাধা দিচ্ছে এবং ইলিশা এলাকায় লাটিসোটা নিয়ে জাহাজে জোর করে টাকা আদায় করছে বলে অভিযোগ উঠেছে বাংলাদেশ নৌ-যান শ্রমিক ও কর্মচারী ইউনিয়নের নামে একটি সংগঠন এর বিরুদ্ধে।

শেয়ার করুন:

আরো সংবাদ:
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৪ - ২০২১ © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ।
Developer By Zorex Zira