নিজস্ব প্রতিবেদক,

দৈনিক ভোলা টাইমস:: ভোলা আলীনগর এলাকার মাদক সম্রাট মাকসুদকে হাতেনাতে ফেনসিডিল সহ গ্রেফতার করেন ভেলুমিয়া ফাঁড়ির পুলিশ।

মাকসুদ  ভোলা জেলা সেচ্ছসেবকলীগ নেতা হিসেবে নিজেকে সবার কাছে তুলে ধরতেন। আলীনগর ইউনিয়নের বাসিন্দা সেন্টু মিলিটারির ছেলে মাকসুদ। গতকাল রাতে তার এক সহযোগিসহ ৮১ পিছ ফেনসিডিল সহ ভেলুমিয়া থেকে আটক করে ভোলা থানা পুলিশ। ফেনসিডিল চালান পাচারের সময় তাকে আটক করা হয়। এই সময় পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে আরেক ইয়াবা ও ফেনসিডিল ব্যবসায়ী মাহাবুব মার্কেট এর সত্ত্বাধিকারী জাকির ও ছাত্রলীগ নেতা কালীনাথ বাজারের জনি তালুকদার দৌড়ে পালিয়ে যায়।

তবে জেলা আ’লীগের ক্ষমতাসীন এক নেতার আস্থাবাজন হওয়ার কারণে পুলিশ এ ব্যাপারে এখনো মুখ খুলতে রাজি হননি। অনেকেই ধারণা করছেন সেই নেতার ফোন পেলে হয়তো পুলিশ তাকে ছেড়ে দিবে।

এছাড়াও জেলা সেচ্ছসেবকলীগের আহ্বায়ক আবু সায়েমের অনুসারীও মাকসুদ। সেচ্ছসেবকলীগের এ নেতার দাপট খাটিয়ে ভোলা কাঁপাতেন মাকসুদ। মাদক ব্যবসায়ী মাকসুদকে কি আদৌ বহিষ্কার হবেন কি না তা নিয়েও দলের অনেকর মধৌ কৌতুহল দেখা দিয়েছে।

পুলিশের একটি সূত্র বলছে, তাকে ছাড়িয়ে নিতে জেলা আ’লীগের এক নেতা জোড় তদবীর চালালেও এসপি সাহেব মামলা দিতে নির্দেশ দিয়েছেন। তাই ডিবি অফিসে মাদক মামলা দায়ের এর প্রস্তুতি চলছে।

সূত্র জানায়, পালিয়ে যাওয়া জাকিরের বোন টেকনাফ থেকে ইয়াবা ও ফেনসিডিল চালান পাঠায় এবং জাকির ও তার ভাই সহ আরও কয়েক জন মিলে ভোলা সহ বিভিন্ন জায়গায় পাচার করে। এর আগেও  তার বোন ও ভাগিনা ১০০০ পিছ ফেনসিডিল সহ গ্রেফতার হয়েছে।

Leave a comment