1. mdmf@gmil.com : আশিষ আচার্য্য : আশিষ আচার্য্য
  2. asrapur121@gmail.com : আশরাফুর রহমান ইমন : আশরাফুর রহমান ইমন
  3. borhanuddin121@gmail.com : বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধি : বোরহানউদ্দিন প্রতিনিধি
  4. admin@bholatimes24.com : Bhola Times | Online Edition : Bhola times Online Edition
  5. ssikderreport@gmail.com : চরফ্যাশন প্রতিনিধি : চরফ্যাশন প্রতিনিধি
  6. dowlatkhan@gmail.com : দৌলতখান প্রতিনিধি : দৌলতখান প্রতিনিধি
  7. easin21@gmail.com : ইয়াছিনুল ঈমন : ইয়াছিনুল ঈমন
  8. gourabdas121@gmail.com : গৌরব দাস : গৌরব দাস
  9. hasanpintu2010@gmail.com : লালমোহন প্রতিনিধি : লালমোহন প্রতিনিধি
  10. hasnain50579@gmail.com : HASNAIN AHMED : MD HASNAIN AHMED
  11. iqbalhossainrazu87@gmail.com : ইকবাল হোসেন রাজু : ইকবাল হোসেন রাজু
  12. iftiazhossen5@gmail.com : ইসমাইল হোসেন ইফতিয়াজ : ইসমাইল হোসেন ইফতিয়াজ
  13. mdmasudalom488@gmail.com : Afnan masud : Afnan masud
  14. mnoman@gmail.com : এম,নোমান চৌধুরী : এম,নোমান চৌধুরী
  15. monpura@gmail.com : মনপুরা প্রতিনিধি : মনপুরা প্রতিনিধি
  16. najmu563@gmail.com : নাজমুল মিঠু : নাজমুল মিঠু
  17. najrul125@gmail.com : নাজরুল ইসলাম সৈারভ : নাজরুল ইসলাম সৈারভ
  18. news.bholatimes1@gmail.com : ডেস্ক রিপোর্ট : ডেস্ক রিপোর্ট
  19. news.bholatimes@gmail.com : News Room : News Room
  20. nirob121@gmil.com : ইউসুফ হোসেন নিরব : ইউসুফ হোসেন নিরব
  21. abnoman293@gmail.com : এম নোমান চৌধুরী চরফ্যশন প্রতিনিধি : এম নোমান চৌধুরী চরফ্যশন প্রতিনিধি
  22. nhohechowdhury@gmail.com : OHE CHOWDHURY NAHID : OHE CHOWDHURY NAHID
  23. mdmasudaom488@gmil.com : তজুমদ্দিন প্রতিনিধি : তজুমদ্দিন প্রতিনিধি
  24. sanjoypaulrahul11@gmail.com : sanjoy pal : sanjoy pal
  25. sohel123@gmail.com : সোহেল তাজ : সোহেল তাজ
  26. btimes536@gmail.com : সৌরভ পাল : সৌরভ পাল
  27. bholatimes2010@gmail.com : স্টাফ রিপোর্টার : স্টাফ রিপোর্টার
বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ০৪:১৪ পূর্বাহ্ন

উপবৃত্তিসহ ২০০০ কোটি টাকা পেল প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা

রির্পোটার
  • সময়: শনিবার, ১৭ জুলাই, ২০২১

দৈনিক ভোলা টাইমস্ঃঃ

করোনা মহামারির মধ্যে একত্রে ছয় মাসের উপবৃত্তির টাকা পেয়েছে প্রাথমিকের ১ কোটি ৪০ লাখ শিক্ষার্থী। টাকা পেয়ে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা স্বস্তি প্রকাশ করেছেন। এর সঙ্গে জামা-জুতা কেনার জন্য প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে কিউস অ্যালাউন্স হিসেবে আরও এক হাজার টাকা দেওয়া হয়েছে। খুব শিগগিরই আরও তিন মাসের উপবৃত্তি মায়েদের নগদ অ্যাকাউন্টে পৌঁছে যাবে বলে জানা গেছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, ২০২০ সালের জুলাই থেকে ডিসেম্বর এ ছয় মাসের উপবৃত্তির টাকা একসঙ্গে মায়েদের ‘নগদ’ অ্যাকাউন্টে পৌঁছে গেছে। প্রতি কিস্তি (তিন মাস অন্তর) উপবৃত্তি বিতরণ করতে প্রায় ৪৫০ কোটি টাকার প্রয়োজন হয়। ওই হিসেবে দুই কিস্তির (৬ মাস) ৯০০ কোটি টাকা বিতরণ করা হয়েছে।  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী, প্রাথমিকের সব শিক্ষার্থীকে জামা ও জুতা কেনার জন্য এককালীন এক হাজার করে টাকা দেওয়া হয়েছে। এ খাতে আরও ১১০০ কোটি টাকা বিতরণ করা হয়েছে। সব মিলিয়ে কঠোর বিধিনিষেধ ও ঈদের আগে এক কোটি ৪০ লাখ শিক্ষার্থীদের মধ্যে ২০০০ কোটি টাকা বিতরণ করা হয়েছে। করোনার এ দুঃসময়ে এই অর্থও অনেক পরিবারে খানিকটা হলেও স্বস্তি দিয়েছে বলে জানান উপকারভোগীরা। জানা গেছে, নানা কারণে অনেক দিন আটকে ছিল সরকারের উপবৃত্তি বিতরণ কার্যক্রম। তবে গত বছর ডিসেম্বরে দ্রুততার সঙ্গে দেড় কোটি শিক্ষার্থী আর তার পরিবারের তথ্য সম্বলিত ডেটাবেজ তৈরি করা হয়। সেটি ব্যবহার করেই গত মার্চ থেকে উপবৃত্তি পৌঁছে যেতে শুরু করে শিক্ষার্থীদের মায়ের নগদ অ্যাকাউন্টে।

একে একে ২০১৯-২০ অর্থ বছরের এপ্রিল-জুন প্রান্তিকসহ ২০২০-২১ অর্থ বছরের চারটি প্রান্তিকের উপবৃত্তি বিতরণ করা হয়। এর মধ্যে আবার শিক্ষার্থী প্রতি এক হাজার টাকা করে শিক্ষা উপকরণও বিতরণ করা হয়। নগদ-এর মাধ্যমে উপবৃত্তি বিতরণ করায় স্বচ্ছতা যেমন নিশ্চিত হয়েছে তেমনি সরকারের বিতরণ খরচ প্রায় ৭০ শতাংশ কমেছে। প্রাথমিক শিক্ষার জন্য উপবৃত্তি প্রদান প্রকল্পের (তৃতীয় পর্যায়) পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) মো. ইউসুফ আলী ঢাকা পোস্টকে বলেন, নানা জটিলতায় গত বছরের ৯ মাসের উপবৃত্তি বকেয়া হয়ে যায়। এর মধ্যে এপ্রিল, মে ও জুন মাসের দ্বিতীয় কিস্তির বকেয়া টাকা গত এপ্রিলে ছাড় হয়। বাকি ছয় মাসের টাকা বিতরণ করা শেষ। এরসঙ্গে এককালীন এক হাজার টাকাও বিতরণ করা হয়েছে। ২০২১ সালে প্রথম কিস্তি (জানুয়ারি-মার্চ) মাসের টাকা বিতরণের প্রস্তুতির চলছে। খুব শিগগিরই এ টাকাও মায়েদের অ্যাকাউন্টে পৌঁছে যাবে।

তিনি বলেন, সরকারের একান্ত প্রচেষ্টায় করোনার মধ্যে মহামারি মধ্যে শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি বিতরণ করা হয়েছে। যা ঝরে পড়াসহ শিক্ষার মান রক্ষায় কার্যকর ভূমিকা রাখবে। নগদ-এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক তানভীর এ মিশুক বলেন, দেশের মানুষকে সবচেয়ে সহজে সেবা বিতরণের অঙ্গীকার নিয়ে নগদ যাত্রা শুরু করে। সেই উদ্দেশ্য মাথায় রেখেই গোটা কাজটা করা হয়েছে।

প্রকল্প সূত্রে জানা গেছে, প্রাক-প্রাথমিকের প্রতিটি শিক্ষার্থীকে ৫০ টাকা হারে উপবৃত্তি দেওয়া হতো। এখন তা বাড়িয়ে ৭৫ টাকা করা হয়েছে। এছাড়া প্রাথমিক স্তরের এক সন্তান বিশিষ্ট পরিবারের মাসিক উপবৃত্তি ১০০ টাকা থেকে বাড়িয়ে ১৫০ টাকা করা হয়েছে। দুই সন্তান বিশিষ্ট পরিবারের উপবৃত্তি ৩০০ টাকা, তিন সন্তান বিশিষ্ট পরিবারের উপবৃত্তি ৪০০ টাকা ও চার সন্তান বিশিষ্ট পরিবারের উপবৃত্তি ৫০০ টাকা করা হয়েছে।

শেয়ার করুন:

আরো সংবাদ:
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০১৪ - ২০২১ © এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার সম্পূর্ণ বেআইনি এবং শাস্তিযোগ্য অপরাধ।
Developer By Zorex Zira