ঘূর্ণিঝড় আম্পান: ভোলায় ক্ষতিগ্রস্ত ৩৪ কিলোমিটার রাস্তা-বেড়িবাঁধ, বিধ্বস্ত হয়েছে ৩৩২টি ঘর

ভোলা টাইম্স রিপোর্ট: ঘূর্ণিঝড় আম্পানের প্রভাবে ভোলায় সম্পূর্ণ বিধ্বস্ত হয়েছে ৩৩২টি ঘর এবং আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে ১৬০০ ঘর। ঝড়ে জেলায় মোট দুর্গত মানুষের সংখ্যা ৩ লাখ ১৮ হাজার। এছাড়াও কাঁচাপাকা রাস্তা ও বেড়িবাঁধ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে সাড়ে ৩৪ কিলোমিটার। প্রায় ৬ হাজার হেক্টর জমির বীজতলা, সবজি ও কৃষি ফসল বিনষ্ট হয়েছে। শুক্রবার (২২ মে) জেলা প্রশাসন কার্যালয়ের কন্ট্রোল রুম থেকে এ তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে। এদিকে জোয়ারের পানিতে প্লাবিত হয়েছে ঢালচর, চর পাতিলা, কলাতরীর চর, মহাজনকান্দিসহ দ্বীপচর ও নিচু এলাকা। সেখানে পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন কয়েক হাজার মানুষ। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্তদের এখন পর্যন্ত ৩০০ মেট্রিক চাল ও নগত ৯ লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও আরও ত্রাণ পাওয়ার জন্য মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছে জেলা প্রশাসন। ভোলার জেলা প্রশাসক মাসুদ আলম ছিদ্দিক বলেন, ঝড়ে যাদের ঘরবাড়ি আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের পুনর্বাসন এবং যাদের সম্পূর্ণ ক্ষতিগ্রস্তদের তাদের জন্য নতুন ঘর দেবে সরকার। এছাড়াও ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের পুনর্বাসন করা হবে এবং তালিকা তৈরির মাধ্যমে গবাদি পশু-মৎস্যচাষিদেরও সহায়তা দেওয়া হবে। ঝড়ে ভোলায় ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে একজন চরফ্যাশনে গাছচাপায় এবং অন্যজন ট্রলার ডুবিতে।

Facebook Comments