মৃত্যুর পর জানা গেল করোনা পজেটিভ, খাদ্য সামগ্রী নিয়ে গেলেন এমপি

 

হাসান পিন্টু:
ভোলার লালমোহনে মৃত্যুর পর একজনের করোনা রিপোর্ট পজেটিভ আসে। উপজেলার চরভূতা ইউনিয়নের আলমগীর গত ২২ মে করোনার উপসর্গ নিয়ে লালমোহন হাসপাতালে ভর্তি হয়ে ২৪ মে মারা যায়। মৃত্যুর ৩দিন পর বুধবার রাতে তার করোনার রিপোর্ট পজেটিভ আসে। এদিকে লালমোহনে বুধবার রাতে নতুন করে আরো ৩ জনের করোনা রিপোর্ট পজেটিভ আসে। এরা হলো পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের হাফিজ উদ্দিন, চরভূতা ইউনিয়নের হরিগঞ্জ গ্রামের আলমগীর ও ধলীগৌরনগর ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের অশোক মজুমদার। বৃহস্পতিবার দুপুরে ভোলা-৩ আসনের এমপি নূরুন্নবী চৌধুরী শাওন আক্রান্ত ৩ বাড়িতে খাদ্রসামগ্রী নিয়ে ছুটে যান। ২০ দিনের জন্য ৩ বাড়িতেই খাদ্য সামগ্রী পৌছে দেওয়া হয়। এসময় উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ গিয়াস উদ্দিন আহমেদ, উপজেলা নির্বাহী অফিসার হাবিবুল হাসান রুমি, ওসি মীর খায়রুল কবীর উপস্থিত ছিলেন। তাদের ৩ বাড়িই লকডাউন করে দেওয়া হয়েছে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে।
জানা গেছে, লালমোহন চরভূতা ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের ইউসুফ আলী মুন্সির ছেলে আলমগীর স্বাসকষ্ট রোগ নিয়ে ২২ মে লালমোহন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়। সেখানে ২৪ মে মারা যায় আলমগীর। আলমগীর লালমোহনে লাকড়ীর ব্যবসা করতো। মৃত্যুর ৩দিন পর বুধবার রাতে তার করোনা ফলালফ পজেটিভ আসে। বৃহস্পতিবার ওই বাড়িটি লকডাউন করে দেওয়া হয়।

Facebook Comments