ভোলার মনপুরায় ছাগলে ক্ষেতের ধান খাওয়াকে কেন্দ্র করে ছাগল মালিক ও ধান ক্ষেতের চাষীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এতে দুই গ্রুপের পাঁচজন আহত হয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হয়েছেন। গতকাল শনিবার সকাল ১০ টায় মনপুরা উপজেলার হাজিরহাট ইউনিয়নের ফকিরহাট বাজারের পশ্চিম পাশে ধান ক্ষেতে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। গুরুত্বর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তিহন ৫ জন, ছাগলের মালিক মফিজা খাতুন (৬৫), ছেলে মুসলিম ও পুত্রবধূ হাসিনা। অপরদিকে সংঘর্ষে ক্ষেতের চাষী নয়ন মহাজন (৩৫) ও তার ভাই কামাল মহাজন (৪০) আহত হন ।

উপজেলার হাজিরহাট ইউনিয়নের ফকিরহাটের একই এলাকার বাসিন্দা তারা। জানা যায়, শনিবার সকালে ছাগলের মালিক মফিজা খাতুন ছাগল নিয়ে নয়ন মহাজনের ধান ক্ষেতের পাশ দিয়ে যাওয়ার সময় দুইজনের মধ্যে তর্ক-বিতর্ক শুরু হয়। পরে নয়ন মহাজন ছাগলের মালিক বৃদ্ধ মফিজা খাতুনকে ধাক্কা মেরে ফেলে দেয়। খবর পেয়ে ওই ছাগল মালিকের ছেলে ও পুত্রবধূ এসে নয়ন মহাজনের উপর হামলা করে। এতে করে টানা সংঘর্ষ চলতে থাকে।

এসময় উভয় গ্রুপের ৫ জন আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়। এ ব্যাপারে হাসপাতালের কর্তব্যরত আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ মশিউর রজহমান জানান, দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আহত ৫ জন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে। তারা চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ বিষয়ে মনপুরা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সাখাওয়াত হোসেন জানান, ঘটনাটি শুনেছি তবে এখনো কেউ অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a comment