ভোলা টাইমস্ ডেস্ক ॥

পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির অন্তর্কোন্দল আগেই প্রকাশ্য রূপ নিয়েছে। দলীয় শিবিরে বিভাজন বাড়ছে ক্রমেই। সাংগঠনিক রদবদলের সঙ্গে সঙ্গে মুখ্যমন্ত্রীর মুখ নিয়েও চর্চা চলছে। এতে সামনে আসছে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের নাম। সংগঠনটির নেতাকর্মীদের অনেকেরই ধারণা, সৌরভের মতো কোনো ‘আইকন’কে সামনে রাখা গেলে অভ্যন্তরীণ বিবাদের নিরসন হতে পারে। রাজ্যে বিধানসভা নির্বাচনে সৌরভকে তুলে ধরা হতে পারে বলে বিজেপি মহলে আগেই জল্পনা ছিল। সৌরভ বা বিজেপি নেতৃত্ব কেউই অবশ্য এ নিয়ে এখনও প্রকাশ্যে মুখ খোলেননি। তবে বিভিন্ন সূত্রে ইঙ্গিত পাওয়া যায়, সৌরভের সঙ্গে দিল্লিতে বিজেপির শীর্ষ স্তরে যথেষ্ট যোগাযোগ রয়েছে। সম্প্রতি কলকাতায় বিজেপির দুর্গাপুজায় সৌরভ-পত্নী নৃত্যশিল্পী ডোনা গঙ্গোপাধ্যায়ের অনুষ্ঠান তারই অংশ বলে রাজনৈতিক মহলের অনেকের মত। দলের নবনিযুক্ত সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি মুকুল রায় ঘনিষ্ঠ মহলে বলেই দিয়েছেন, সৌরভ রাজি হলে তিনি তাতে অকুণ্ঠ সমর্থন দেবেন।

এদিকে সম্ভাব্য ‘মুখ’ হিসাবে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ থেকে শুরু করে সাংসদ স্বপন দাশগুপ্ত, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়র নামও অনেক দিন ধরে ঘুরছে। সর্বশেষ তার সঙ্গে যুক্ত হয়েছে সাংসদ ও রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক লকেট চট্টোপাধ্যায়ের নামও। ঘোষ নিজে অবশ্য দাবি করেছেন, তার কাছে সংগঠনের দেয়া দায়িত্বই শেষ কথা। নিজের আগ্রহ বলে কিছু নেই। অন্যেরাও কেউ এ বিষয়ে মৌখিকভাবে কোনো আগ্রহ প্রকাশ করেননি।অন্য দিকে, রাজ্য বিজেপির কেন্দ্রীয় পর্যবেক্ষক কৈলাস বিজয়বর্গীয় আগেই জানিয়ে রেখেছেন, বিধানসভা ভোটের আগে দল কাউকে মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী হিসাবে তুলে ধরবে না।

সূত্র: আনন্দবাজার পত্রিকা

Leave a comment