ভোলায় কমিউনিটি পুলিশিং ডে-২০২০ উদযাপন করা হয়। ভোলা জেলা পুলিশ এর আয়োজনে গতকাল (৩১ অক্টোবর) পুলিশ লাইন্সে এ উদযাপন পালন করা হয়। মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) ভোলা এর সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভোলা জেলা পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভোলা সরকারী কলেজের অধ্যক্ষ, অধ্যাপক গোলাম জাকারিয়া, ভোলা প্রেসক্লাব সভাপতি এম. হাবিবুর রহমান, আঃ রব স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ, সাফিয়া খাতুন, ভোলা সদর উপজেলার ভাইস চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইউনুস ।

অনুষ্ঠানের শুরুতে প্রধান অতিথি ফেস্টুনি উড়িয়ে কমিউনিটি পুলিশিং ডে-২০২০ এর শুভ উদ্বোধন করেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কমিউনিটি পুলিশিং এর আইনগত ভিত্তি সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন সরকার মোহাম্মদ কায়সার। এসময় তিনি আরো বলেন, অপরাধ দমন,প্রতিরোধ এবং সামাজিক সমস্যা সমাধানে কমিউনিটি পুলিশিং ভ্যাকসিন হিসেবে কাজ করে। মুজিবর্ষের অঙ্গীকার পুলিশ হবে জনতা’ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে আমাদের এ অঙ্গীকার বাস্তবায়নে আমাদের প্রানান্তর প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। আমরা চাই সত্যিকারের জনগণের পুলিশ হতে। একটি সমৃদ্ধ সোনার বাংলা গঠনে যে ধরনের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি এবং নিরাপদ পরিবেশ দরকার সেটি বাস্তবায়নে আমরা কাজ করে যাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, আইজিপি ড. বেনজীর আহমেদ মহোদয়ের সুদূর প্রসারী চিন্তা-ভাবনার মাধ্যমে সর্বোশেষ কমিউনিটি পুলিশিং এর পরিপূরক কর্মসূচি হিসেবে বিট পুলিশিং কার্যক্রমকে সারাদেশের মতো ভোলায়ও শক্তিশালী ভাবে অব্যাহত আছে।

অনুষ্ঠানে কমিউিনিটি পুলিশিং কার্যক্রমে অনবদ্য অবদানের স্বীকৃতি স্বরুপ আইজিপি ডঃ বেনজীর আহমেদ মহোদয় কর্তৃক প্রেরিত শ্রেষ্ঠ কমিউিনিটি পুলিশিং কর্মকর্তা হিসেবে জনাব মোঃ শাখাওয়াত হোসেন, অফিসার ইনচার্জ, মনপুরা থানা এবং শ্রেষ্ঠ কমিউিনিটি পুলিশিং সদস্য মনোনীত জনাব মোহাম্মদ ইউনুস, সেক্রেটারী কমিউনিটি পুলিশিং কমিটি ভোলা-কে সম্মাননা স্মারক প্রদান করেন পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার। সভায় উপস্থিত ছিলেন, ভোলা জেলা পুলিশের বিভিন্ন পর্যায়ের অফিসারবৃন্দ সহ বিভিন্ন ইউনিয়নের ইউনিয়ন চেয়ারম্যান, কাউন্সিলর ও কমিউনিটি পুলিশিং এর বিভিন্ন পর্যায়ের সদস্যবৃন্দ ।

Leave a comment