ফ্রান্সে রাষ্ট্রিয় ভাবে রাসুল (সাঃ) এর অবমাননার প্রতিবাদে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভা করছে খেলাফত যুব মজলিস ভোলা জেলা শাখা। গতকাল সোমবার (২ নভেম্বর) বিকালে ভোলা কে জাহান মার্কেটের সামনে এই মানববন্ধন কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ভোলা জেলা মুসলিম ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক মাওলানা মুবাশ্বেরুল হক নাঈম। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন ইসলামিক ফাউণ্ডেশনের মাস্টার ট্রেইনার মুফতি রিয়াজ উদ্দিন কাসেমী, খেলাফত যুব মজলিস নেতা মাওলানা নুরুল্লাহ তাহেরী।

বাংলাদেশ খেলাফত যুব মজলিস ভোলা জেলা সভাপতি মুফতী সাখাওয়াতুল্লাহ আমিনের সভাপতিত্বে এসময় বক্তব্য রাখেন, যুব মজলিস নেতা মুফতী তরিকুল ইসলাম, মুহাম্মদ হেমায়েত উল্লাহ, মুফতী ইমরান হুসাইন, ছাত্র মজলিস ভোলা জেলার সভাপতি,মুহাম্মদ নজরুল ইসলাম সহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতৃবৃন্দ। এ সময় বক্তারা বলন রাসুল স. এর প্রতি ভালোবাসা একজন ঈমানদারের সবচেয়ে বড় বৈশিষ্ট্য। যে ব্যক্তি রাসূল স. কে নিজের জীবন হইতে অধিক পরিমাণে ভালোবাসবে না, সে পূর্ণ ঈমানদার হতে পারবে না।

ফ্রান্স সরকার রাসুল স. কে অবমাননা করে আমাদের মুসলিমদের কলিজায় আঘাত হেনেছে। তাই নবীর দুশমন ফ্রান্সকে চূড়ান্ত শিক্ষা দেওয়ার জন্য আমাদেরকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আমাদের সামর্থ্য অনুযায়ী তাদেরকে প্রতিহত করতে হবে। ফরাসি পণ্য বর্জন করে তাদের অর্থনৈতিক বাজারে ধস নামাতে হবে। এ সময় বক্তারা আরো বলেন ফ্রান্স সরকার নবীর দুশমন তাই মুসলমানের দুশমন, নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি অসালাম এর দুশমনদের সাথে কোন মুসলমান সম্পর্ক রাখতে পারেনা। যারা সম্পর্ক রাখবে তারা মুসলমান থাকবে না।

বক্তারা সংখ্যাগরিষ্ঠ মুসলিম দেশ বাংলাদেশের সরকারের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন অচিরেই সংসদে বিল পাস করার মাধ্যমে সরকারের ইসলামবিদ্বেষী নবীর শানে বেয়াদবী মূলক কাজের নিন্দা জানান। এর পাশাপাশি ফরাসি রাষ্ট্রদূত কে বহিষ্কারের মাধ্যমে ফ্রান্সের সাথে কূটনৈতিক সম্পর্ক বাতিল করেন অন্যথায় এদেশের তৌহিদী জনতা নবীর ইজ্জত রক্ষা নিজেদের প্রাণ বিলিয়ে দিতে দ্বিধা করবে না। সমাবেশ শেষে দোয়া মোনাজাত এর মাধ্যমে কর্মসূচি শেষ হয়।

Leave a comment