মোঃ আরিয়ান আরিফ ॥
ভোলার আবহাওয়া অফিস রোডস্থ ‘তানজিমুল কোরআন মাদ্রাসার’ হেফজ ছাত্রদের ছবক প্রদান করা হয়েছে।গত রবিবার (১ নভেম্বর) সন্ধ্যায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের নায়েবে আমীর মুফতি সৈয়দ ফয়জুল করিম।

এ সময় তিনি বলেন,কওমি মাদ্রাসাগুলোতে নৈতিকতা, আদর্শ চরিত্র দ্বীনি এলেম শিক্ষা দেওয়া হয়। কওমি মাদ্রাসার ছাত্ররা সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, ধর্ষণ, টেন্ডারবাজি, অনৈতিকতার সাথে জড়িত হয় না। কওমি মাদ্রাসাগুলো আদর্শ মানুষ গড়ার কারখানা হিসাবে পরিচালিত হয়। বৃটিশ শাসকরা এদেশের মুসলমানকে ইসলাম থেকে সরানোর জন্য হাজার হাজার মাদ্রাসা বন্ধ করে, হাজার হাজার আলেমকে ফাঁসিতে ঝুলিয়ে হত্যা করে।

তারা চেয়েছিল এদেশের মানুষকে দ্বীন থেকে, ইসলাম থেকে বিমুখ করতে। বর্তমানে বাংলাদেশের আনাচে-কানাচে অসংখ্য মাদ্রাসা গড়ে উঠছে। মাদ্রাসাগুলো থেকে আদর্শ ছাত্র বের হয়। যারা তাদের পিতা মাতাকে বৃদ্ধ অবস্থায় সেবা-যত্ন করে, বৃদ্ধাশ্রমে পাঠায় না। বর্তমানে কিছু তথাকথিত বুদ্ধিজীবী নামে ইংরেজদের মত এদেশের মাদরাসা শিক্ষার বিদ্বেষ করছে। তারা চায় এদেশ থেকে ইসলাম মিটিয়ে দিতে।

এদেরকে প্রতিহত করে দ্বীনি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে হবে। তানজিমুল কোরআন মাদ্রাসার পরিচালক মাওলানা মোঃ তরিকুল ইসলামের সঞ্চালনায় হেফজ ছাত্রদের ছবক প্রদান অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, মুফতি ইয়াসিন নবীপুরী, মাদ্রাসার সভাপতি বিশিষ্ট সমাজসেবক ইয়ারুল আলম লিটন, ইসলামী আন্দোলন ভোলা জেলার সম্পাদক মাওঃ আতাউর রহমান মমতাজি, দারুল কুরআন ঈদগাহ মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা গোলাম মোর্শেদ প্রমুখ।

Leave a comment